Thursday, October 31, 2013

গিট্টু কেরামতি - এসো গিট্টু লাগাই

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে দড়ির কাজের কোন বিকল্প নেই। সকালে জুতার ফিতা বাঁধা থেকে শুরু করে রাতে মশারির টাঙ্গানো পর্যন্ত প্রতিদিন অসংখ্যবার আমাদের “গিট্টু” বা গেরো মারতে হয়। আর outdoor কর্মকাণ্ড বা ক্যাম্পিং হলে তো কোন কথাই নেই। তাঁবু খাটাতে, কাপড় শুকানোর দড়ি টানাতে, সেলাই করতে, দুইটা দড়ি জোড়া দিয়ে লম্বা করতে, কোন কার্টুন প্যাকিং করতে, এরকম অসংখ্য প্রয়োজনে প্রতিদিন আমাদের গিট্টু কাজে লাগে।

গেরোর প্রকারভেদের কোন অভাব নেই। বিভিন্ন কাজের জন্য বিভিন্ন ধরনের গেরো ব্যবহার করা হয়। তাও মৌলিক কিছু গেরো জানলে প্রতিদিনের অনেক কাজ সহজে করা যায়।

Thumb Knot – দড়ির কাজের শুরু এটা দিয়েই। খুবই সহজ।

[caption id="attachment_389" align="aligncenter" width="361"]Thumb Knot, Photo Courtesy: 66thlondon.org Thumb Knot, Photo Courtesy: 66thlondon.org[/caption]

ব্যবহার - দড়ির দুই মাথায় থাম্ব নট দিয়ে রাখা একটা ভাল অভ্যাস। এটা দড়ির দুই মাথার সুতা বের হওয়া রোধ করে।

Square Knot/Reef Knot – মূলত দুইটা সমান মোটা বা পুরুত্বের দড়ি জোড়া দেয়ার জন্য এই গেরো ব্যবহার করা হয়।

[caption id="attachment_390" align="aligncenter" width="212"]Square Knot/Reef Knot, Photo Courtesy: coustructionmanuals.tpub.com Square Knot/Reef Knot, Photo Courtesy: coustructionmanuals.tpub.com[/caption]

ব্যবহার – কিছু প্যাঁচানো শেষে দড়ির দুই মাথা জোড়া দিতে এই গেরো ব্যবহার করা হয়। এছাড়া দুইটা দড়ি জোড়া দিতেও এই গেরো কাজে লাগে। দাক্তারিতেও এর ব্যবহার আছে। সাধারণত ব্যান্ডেজ বা স্লিং শেষে এই গেরো মারা হয়।

Shoelace Bow – ছোটবেলা থেকেই অনেকের জুতার ফিতা বাঁধতে সমস্যা হয়। আমার পরিচিত অনেকের এখনও এই সমস্যা রয়ে গেছে।

[caption id="attachment_391" align="alignleft" width="346"]Shoelace knot, Photo Courtesy: sites.google.com/site/laurabrarian Shoelace knot, Photo Courtesy: sites.google.com/site/laurabrarian[/caption]

 

[caption id="attachment_393" align="alignright" width="396"]Shoelace Bow, Photo Courtesy: animatedknots.com Shoelace Bow, Photo Courtesy: animatedknots.com[/caption]

 

 

 

 

 

 

 

ব্যবহার – অবশ্যই জুতার ফিতা বাঁধতে। এছাড়া ফসকা প্রকৃতির হওয়ায় (এক মাথা ধরে তান দিলেই খুলে যায়) এর বিবিধ ব্যবহার রয়েছে।

Clove Hitch – দড়ির এক প্রান্ত কোন খুঁটিতে শক্ত করে বাঁধতে এটা ব্যবহার করা হয়। মজার ব্যাপার হল যত টানা হয় এই গেরো তত মজবুত হয়, শিথিল করলেই ঢিলা হয়ে যায়।

[caption id="attachment_394" align="aligncenter" width="288"]Photo Courtesy: familythorton.wordpress.com Photo Courtesy: familythorton.wordpress.com[/caption]

ব্যবহার – সুতার সাথে বড়শি বাঁধতে ব্যবহার করা হয়।

Sheet Bend – দুইটা অসমান পুরুত্বের দড়ি জোড়া দিতে এই গেরো ব্যবহৃত হয়।

[caption id="attachment_395" align="aligncenter" width="360"]Sheetbend, Photo Courtesy: animatedknots.com Sheetbend, Photo Courtesy: animatedknots.com[/caption]

ব্যবহার – পাল টানাতে। এছাড়া একটা মোটা আর একটা চিকন দড়ি জোড়া দিতে এর জুড়ি নেই, বাঁধন অনেক শক্ত হয়।

Bow Line – এই গেরোর বৈশিষ্ট্য হল, লুপ যতটুকু রেখে গেরো বাঁধা হবে ততটুকুতেই আটকে যায়, টানাটানি করলেও বড় বা ছোট হয় না।

[caption id="attachment_396" align="aligncenter" width="237"]Bowline, Phhoto Courtesy: menshealth.com Bowline, Phhoto Courtesy: menshealth.com[/caption]

ব্যবহার – টানাটানি করলে ছোট বা বড় হয় না দেখে অনেক উদ্ধার কাজে এর ব্যবহার আছে। বিপদগ্রস্থ মানুষকে গর্ত থেকে তুলতে বা উঁচা জায়গা থেকে নামাতে কোমরে বা বুকের কাছে এই গেরো মারা হয়। ওজনে টান খেয়ে লুপ ছোট হয়ে গেলে দড়ির চাপেই মানুষের বারটা বাজবে।

Fisherman’s Knot – দুইটি ভিজা দড়ি জোড়া দিতে এর জুড়ি নেই। এবং খুবই সহজ, Thumb Knot দিতে পারলেই চলে। অনেক সময় জোড়া আরও মজবুত করার জন্য একেক প্রান্তে দুটি লুপ করে Thumb Knot দেয়া হয়। ওটাকে Double Fisherman’s Knot বলে।

[caption id="attachment_397" align="aligncenter" width="203"]Fisherman's Knot, Photo Courtesy: wilderness-survival.net Fisherman's Knot, Photo Courtesy: wilderness-survival.net[/caption]

ব্যবহার – ভেজা দড়ি জোড়া দিতে ব্যবহার করা হয় বলে জেলেদের মধ্যে এর প্রচলন সবচেয়ে বেশি।

Marline Spike Hitch – দড়ির মাঝখানে এক বা একাধিক লাঠি বাঁধতে এর তুলনা নেই।

[caption id="attachment_398" align="aligncenter" width="191"]Marlin Spike Hitch, Photo Courtesy: pioneeringmadeeasy.co.uk Marlin Spike Hitch, Photo Courtesy: pioneeringmadeeasy.co.uk[/caption]

ব্যবহার – দড়ি ও লাঠি বা বাঁশ দিয়ে মই বানাতে কাজে লাগে।

Square Lashing – ল্যাশিং সাধারণত দুই বা তার বেশি লাঠি দড়ি দিয়ে জোড়া দিতে ব্যবহার করা হয়। লাঠি বা বাঁশের কাঠামো তৈরি করতে লাশিং এর বিকল্প নেই। যেকোনো কাঠামোতে স্কয়ার ল্যাশিং সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ল্যাশিং। এছাড়া প্রয়োজন ভেদে আরও অনেক প্রকারের ল্যাশিং এর ব্যবহার আছে।

স্কয়ার ল্যাশিং ব্যবহার করা হয় দুইটি লাঠিকে পরস্পরের লম্বভাবে (+ চিহ্নের মত) জোড়া দিতে। এর শুরু এবং শেষ হয় Clove Hitch দিয়ে।

[caption id="attachment_399" align="aligncenter" width="313"]Square Lashing, Photo Courtesy: tinhkhiet.org Square Lashing, Photo Courtesy: tinhkhiet.org[/caption]

এছাড়া আরও অসংখ্য গেরো ও ল্যাশিং আছে। একেকটা একেক কাজের জন্য। আমাদের প্রতিদিনের জীবনে সবগুলোর প্রয়োজন না থাকলেও মৌলিক কিছু শিখে রাখলে প্রতিদিন অনেক কাজে দিবে। পরের বার নিজের জুতার ফিতা নিজেই বাঁধবেন, নিজের বস্তা নিজেই পেঁচাবেন, নিজের কাপড় শুকানোর দড়ি নিজেই টাঙাবেন।

1 comment:

  1. কোন ছবি দেখা যাচ্ছে না । লিংক কাজ করে না । 404 Not Found .

    ReplyDelete